আজ   ,
সংবাদ শিরোনাম :

কিংবদন্তী রাজনৈতিক নেতা ভাষাসৈনিক রফিক উদ্দিন ভূঁইয়ার ভাতিজা।।নান্দাইলে আওয়ামীলীগের ঐক্যের প্রতীক মনোনয়ন প্রত্যাশী কবির ভূঁইয়া

মো:আশরাফুল আলম(জালাল),,নান্দাইল থেকে:

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট কবির উদ্দিন ভূঁইয়া একজন সিনিয়র আইনজীবী। রাজনৈতিক ভাবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন একনিষ্ট কর্মী। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী, অত্যন্ত সহজ সরল ও সমাজ হিতৈষী এ মানুষটি আজীবন মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ বাস্তবায়নে নিরলস ভাবে কাজ করে চলছেন। মানবতাবাদী আদর্শিক এ ব্যক্তিটিকে কোন লোভ লালসা গ্রাস করতে পারেনি। নির্ভীক, নির্লোভ জীবন যাপন করে সকলের অত্যন্ত প্রিয় ও শ্রদ্ধাভাজন মানুষ হিসেবে ময়মনসিংহ জেলার সর্বত্র বিশেষ করে নান্দাইলের মানুষের মনের কুঠরিতে ঠাঁই করে নিয়েছেন। সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান কবির উদ্দিন ভূঁইয়া জীবন ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায়- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের বিশ^স্থ ও ঘনিষ্ট সহচর, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সাবেক সহ-সভাপতি, বৃহত্তর ময়মনসিংহের রাজনৈতিক কিংবদন্তী অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় ব্যক্তিত্ব ভাষা সৈনিক রফিক উদ্দিন ভূঁইয়ার ভাতিজা। মরহুম রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া এ উপমহাদেশের আদর্শিক ও শীর্ষ রাজনীতিকদের মধ্যে একজন। তিনি ছিলেন রাজনীতি ও মানবতার আদর্শের প্রতীক। স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে তার নাম বাঙালি হৃদয়ে আজীবন স্বর্ণাক্ষরে লিখিত থাকবে। ইতিহাসের পাতায় তিনি অমর এবং অক্ষয়। বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলে তিনি ছিলেন রাজনীতির আকাশে মুকুটহীন স¤্রাট। এই শ্রদ্ধাভাজন প্রয়াত রফিক উদ্দিন ভূঁইয়ার আদর্শে গড়ে উঠা বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট কবির উদ্দিন ভূঁইয়ার রাজনীতির জীবন শুরু হয় বর্তমান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের হাত ধরে। ভাষা সৈনিক রফিক উদ্দিন ভূঁইয়ার আদেশ ও নির্দেশনা অনুযায়ী কবির উদ্দিন ভূঁইয়ার রাজনীতিতে অনুপ্রবেশ ঘটে ১৯৬৫ সালে। কিশোরগঞ্জের গুরুদয়াল কলেজে ইন্টারমিডিয়েটে পড়া অবস্থায় তিনি ছাত্রলীগের একজন কর্মী হিসেবে রাজনীতিতে যোগদান করেন। ১৯৬৫ সাল থেকে শুরু করে অদ্যাবধি নিরলস ভাবে একজন নিভৃতচারী চাষীর ন্যায় রাজনীতির মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। বর্তমানে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে তার নাম রয়েছে। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদে কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। নান্দাইল উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র কার্যনির্বাহী সদস্য। ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক ও কার্যনির্বাহী সদস্য। আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, ময়মনসিংহ জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক; তৎকালীন কিশোরগঞ্জ মহকুমা ছাত্র লীগের দুই বার সাবেক সভাপতি; বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের দুই বার সাবেক সহ-সভাপতি; কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ কার্যকরী কমিটির সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক; বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের প্রতিষ্ঠাকালীন আহবায়ক কমিটির সদস্য; বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা চলচ্চিত্র প্রেক্ষাগৃহ শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি; আনন্দমোহন কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভি.পি; ময়মনসিংহ জেলা আইনজীবী সমিতির দুই বার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি; ময়মনসিংহ রোটারী ক্লাবের সাবেক সম্পাদক; শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ অর্গানাইজিং কমিটির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য; ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন ময়মনসিংহ শাখার প্রতিষ্ঠাকালীন কার্যকরী কমিটির সদস্য ও আজীবন সদস্য; নান্দাইল মুসুল্লী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি। নান্দাইল উপজেলা আওয়ামীলীগের ঐক্যের প্রতীক এডভোকেট কবির উদ্দিন ভূঁইয়া। এছাড়াও আরও বহু সামাজিক সংগঠনের সংগে তিনি জড়িত রয়েছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট কবির উদ্দিন ভূঁইয়ার পিতার নাম মরহুম ফিরোজ উদ্দিন ভূইয়া। স্থায়ী নিবাস নান্দাইলের মেরেঙ্গা গ্রামে। বর্তমান বসবাসের ঠিকানা-ময়মনসিংহ শহরের আকুয়া দক্ষিণপাড়াস্থ কবির ভিলা। তিনি ১৯৪৭ সনে ১লা মার্চ জন্ম গ্রহণ করেন। আইন শাস্ত্রে শিক্ষালাভ করে উচ্চতর ডিগ্রী নিয়ে সুনামের সাথে আইন পেশায় দীর্ঘকাল যাবৎ জড়িত রয়েছেন। বর্তমানে জেলা নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটরের দায়িত্ব পালন করছেন এবং তিনি বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচন ২০১৮ “গ্রুপ-বি” (বৃহওর ময়মনসিংহ , টাঙ্গাইল ও ফরিদপুর অঞ্চল) এর বিপুল ভোটে নির্বাচিত সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। কবির উদ্দিন ভূঁইয়া ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চেয়ে মনোনয়ন প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হন। কিন্তু তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে এক চুলও নেড়ে আসেননি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা আওয়ামীলীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি গভীর আস্থা ও শ্রদ্ধা রেখে দলীয় সকল কর্মকা- নিরলস ভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি গত ২৭ জুলাই/১৮ইং মুক্তিযোদ্ধাদের কার্যালয়ে মুক্তিযোদ্ধাতের সাথে তাঁর রাজনৈতিক জীবনের বর্ণনা দেন। তিনি আশা পোষণ করে বলেন- আগামী সংসদ নির্বাচনে দল আমার প্রতি বিবেচনা করে দলীয় মনোনয়ন দিবেন। প্রধানমন্ত্রী নিশ্চয়ই সকল দিক বিবেচনা করে দল থেকে ময়মনসিংহ-৯, নান্দাইল আসন থেকে আমাকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার সুযোগ করে দিবেন। আমি দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্তির প্রত্যাশা করছি।
সূত্র:উপজেলা প্রেসক্লাব,, নান্দাইল।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।


ঘোষনাঃ