আজ   ,
সংবাদ শিরোনাম :

পেঁয়াজের ১০ গুণ

অনলাইন ডেস্ক

সালাদ, স্যান্ডউইচ, মুড়িতে মেখে কিংবা রান্নার ক্ষেত্রে তরকারিতে পেঁয়াজ খাই আমরা। কিন্তু জানেন কি- পেঁয়াজ স্বাস্থ্যের জন্য কতোটা উপকারী! প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণের সঙ্গে এতে রয়েছে ফাইটোকেমিক্যাল, যা আমাদের শরীরে নানা উপকারে আসে। আসুন জেনে নিই পেঁয়াজের নানান গুণ সম্পর্কে-
১. পেঁয়াজে কার্মিনেটিভ, অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল, অ্যান্টিসেপ্টিক ও অ্যান্টিবায়োটিক জাতীয় পদার্থ রয়েছে। তাই শরীরের কোথাও সংক্রমণ হলে কাঁচা পেঁয়াজ একটু বেশি খান, উপকার পাবেন।
২. পেঁয়াজে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন B ও C, মিনারেল, ফাইবার, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, সালফার থাকে।
৩. ঠান্ডা, গলা ব্যথা, সর্দি-কাশি ও অ্যালার্জির ক্ষেত্রে দারুণ কাজ করে পেঁয়াজ। এসব ক্ষেত্রে সামান্য পেঁয়াজের রসের সঙ্গে একটু মধু মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন।
৪. জ্বরে দেহের তাপমাত্রা বেশি থাকলে গোল করে কাটা পেঁয়াজ কপালে রাখুন। কিছুক্ষণের মধ্যে তাপমাত্রা কমে যাবে।
৫. হজমে সমস্যা থাকলে রোজ একটু কাঁচা পেঁয়াজ খান। পেঁয়াজ খাবার হজমের জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন এনজাইম বাড়াতে সাহায্য করে। এর ফলে দ্রুত খাবার হজম হয়।
৬. পোকামাকড়ের কামড়, রোদে পোড়া ট্যান, ব্রণের সমস্যা থাকলে সেই জায়গায় একটু পেঁয়াজের রস লাগান। একটু অস্বস্তি লাগলেও দ্রুত কাজ করবে।
৭. কোলন ক্যান্সারের মতো রোগের সঙ্গে লড়াই করে পেঁয়াজ।
৮. পেঁয়াজ দেহের খারাপ কোলেস্টরেল কমায়। এর ফলে আপনার হার্ট সুস্থ থাকে।
৯. হাড়ের কঠিন অসুখ অ্যাথেরসক্লেরোসিস ও অস্টিওপোরোসিসের সঙ্গে লড়াই করতে পেঁয়াজ অত্যন্ত কার্যকরী।
১০. পেঁয়াজ দেহে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়াতে ও রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে কাজ করে। তাই ডায়াবেটিস রোগীরা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিয়মিত পেঁয়াজ খেতে পারেন। সূত্র: জিনিউজ

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।


ঘোষনাঃ