আজ   ,
সংবাদ শিরোনাম :
«» জলাতঙ্ক থেকে বাঁচার উপায় «» সাহিত্যের আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে মোস্তফা কামালের ‘থ্রি নভেলস’ «» ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাসের প্রতিবাদে পটুয়াখালীর বাউফলে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সামবেশ «» দুমকিতে ডাব খাওয়ার অপরাধে দু’ছাত্রকে মারধর,শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, ধাওয়া-পাল্টা «» কলাপাড়ায় সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড প্রচার ও উন্নয়ন ভাবনা শীর্ষক মতবিনিময় সভা «» স্বরুপকাঠীতে শিক্ষক সমিতির ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত «» নদী বিষয়ক বইমেলা উদ্বোধন «» নরসিংদীতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর উদ্বোধন «» ঢাকায় সাপের দংশনে প্রাণ গেল কলেজছাত্রের «» লন্ডনে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

রমজানের শুরুতেই শার্শার হাটবাজারে কাঁচামালের দাম বেড়ে দ্বিগুন-শিক্ষার কণ্ঠস্বর

 

জয়নাল আবেদীন,জেলা প্রতিনিধি,যশোর।।পবিত্র রমজান মাস পড়ার সাথে সাথে যশোরের শার্শা উপজেলার সবক’টি হাট বাজারে কাঁচামাল সহ রোজাদারদের নিত্য প্রয়োজনীয় সব জিনিষপত্রের দাম দুইগুন থেকে তিনগুন পর্যন্ত বেড়ে গেছে।এক লাফেই এসকল পন্যের দাম বেড়ে গেছে।শনিবার সকালে বাগআঁচড়া সহ বিভিন্ন বাজারে ঘুরে দেখা গেছে, রমজানের আগের দিন পর্যন্ত যে কলা বিক্রি হয়েছে ২৫ টাকা তা এখন ৪০ টাকা,২০ টাকার বেগুন ৪০ টাকা,পুর্বের ১৫ টাকার পটল ৩৫ /৪০ টাকা,ঢেঁড়স বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা, আগে এর দামছিল ১৫ টাকা,১৫ টাকার বরবটি এখন ৩০টাকা,কাঁচামরিচ ৩০ টাকা যা ছিল ২৫ টাকা,কোনো বাজারে ৮০ টাকাও বিক্রি হচ্ছে কাঁচামরিচ।
পুর্বে যে আদা বিক্রি হতো ৬০ টাকা তার মুল্য এখন ১২০ টাকা।শশার দাম তিনগুন বেড়েছে, ২০ টাকার শশা এখন ৬০ টাকায় কিনতে হচ্ছে রোজাদারদের।

পাকাকলা ৬০ টাকা, আখের পাটালী ৮০ টাকা।গ্রামাঞ্চলে ইফতার সামগ্রীরও দাম বেশি।

রোজাদারের নিত্যকার জিনিসের দাম খেটে খাওয়া মানুষের হাতের নাগালের বাইরে চলে গেছে। এ ব্যাপারে বাগআঁচড়া বাজারের বেত্রাবতী ভেজিটেবলসের স্বত্বাধিকারী মেহেদি হাসান জানান, কাঁচামালের আড়তদাররা দাম বাড়িয়ে দিয়েছে আমরা কি করবো।আড়তদারের কথা অতি বৃষ্টির কারনে তরকারির উৎপাদন কম যে কারনে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে চাষীরা। চাষীদের কথা ক্ষেতে যেয়ে ফড়িয়ারা যেদাম বলে সেদামেই বিক্রি করি আমরা।কেউ কোনো দোষ ঘাড়ে রাখছেনা।এ যেনো সবদোষ ক্রেতাদের।ক্রেতারা কিনছে কেনো?

সাধারন ক্রেতাদের কথা বাজারে মনিটারিং ব্যাবস্তা না থাকার কারনে ব্যাবসায়ীরা ইচ্ছা মত জিনিসের দাম বাড়িয়ে চলেছে।তাদের দাবী এর একটা বিহিত করা দরকার।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।


ঘোষনাঃ