আজ   ,
সংবাদ শিরোনাম :
«» আনন্দমোহন কলেজ থেকে বোরকা পরা যুবক আটক «» অফিস সহকারীর কান্ড! বহিরাগত বখাটেদের হামলায় ২১ এসএসসি পরীক্ষার্থী আহত «» ইন্টারনেটের দাম কমছে «» কেন্দুয়ায় গড়াডোবা ইউনিয়নের অান্তঃবার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত «» এসএসসির প্রশ্ন যাবে অ্যালুমিনিয়ামের ফয়েলে তৈরি বিশেষ খামে «» ২২ জানুয়ারি থেকে সব কোচিং সেন্টার বন্ধ: শিক্ষামন্ত্রী «» পায়রাবন্দরে তাপ-বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আগুনে পুড়ে গেছে একটি প্রকল্প-প্রজেক্টের ওয়ার্কশপ «» সোনারগাঁয়ে ৪০ জন দরিদ্র শিক্ষার্থীকে স্কুল ড্রেস দিলেন শিক্ষানুরাগী আবু নাঈম ইকবাল «» স্বাস্থ্য সুরক্ষায় খেতে পারেন আদা «» স্বরুপকাঠীতে মাধ্যমিক শিক্ষক কর্মচারীদের শিক্ষক কল্যান সমিতির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

৬৭ বছরের মুক্তিযোদ্ধার বিরামহীন ১৮৫ কিলোমিটার সাঁতারে বিশ্বরেকর্ড।।

 

এ কে এম আব্দুল্লাহ : এক টানা ৬১ ঘন্টা বিরামহীন সাঁতার কেটে বিশ্ব রেকর্ড সৃষ্টি করেই তীরে উঠলেন ৬৭ বছর বয়সী কৃতি সাঁতারু মুক্তিযোদ্ধা তিীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য।
আজ বুধবার রাত ৮টার দিকে মদন উপজেলার দেওয়ান বাজার ঘাটে পৌঁছার সাথে সাথে তার তিন দিনের ১শ ৮৫ কিলোমিটার বিরামহীন একক দূরপাল্লার সাঁতার শেষ হয়। এ সময় নদীর দুই পাড়ে হাজার হাজার উৎসুক জনতা করতালি দিয়ে তাকে স্বাগত জানান।

সাতারু তিীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য গত ৩ সেপ্টেম্বর সকাল ৭টায় শেরপুরের নালিতাবাড়ীর ভোগাই নদীর ব্রীজ থেকে দূর পাল্লার একক সাঁতার শুরু করেন।
নেত্রকোনার মদন উপজেলা নাগরিক কমিটি ও শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরসভা যৌথভাবে এই দূরপাল্লার একক সাঁতারের আয়োজন করে। নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুর রহমান আনুষ্ঠানিকভাবে এই একক সাঁতারের উদ্বোধন করেন।

মুক্তিযোদ্ধা সাঁতারু তিীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্যের বাড়ি নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর বৈশ্যপাড়া গ্রামে। তিীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদাথর্ বিদ্যায় এমএসসি পাস করেন। বর্তমানে তিনি বিমানের এএনএস কনসালট্যান্ট হিসেবে কর্মরত।

সাতারু তিীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য বিশ্ব রেকর্ড গড়ার ল্েয ১৮৫ কিলোমিটার নদী পথ সাঁতরে পাড়ি দেন। ১৮৫ কিলোমিটার নদীপথ পাড়ি দিতে সাতারু বৈশ্যকে শেরপুরের নালিতাবাড়ী ছাড়াও ময়মনসিংহের তারাকান্দা, ফুলপুর, ধোবাউড়া, নেত্রকোনার পূর্বধলা, দুর্গাপুর, নেত্রকোনা সদর, আটপাড়া ও মদন উপজেলা পাড়ি দিতে হয়েছে। বৈশ্যের বিরামহীন সাতার দেখতে পথে পথে নদীর দু’পাড়ে দাড়িয়ে শত শত মানুষ করতালি দিয়ে উৎসাহ যোগিয়েছে।

মদন উপজেলার নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক সাবেক পৌর মেয়র দেওয়ান মোদাচ্ছের হোসেন শফিক বলেন, গুগল ম্যাপ ডেটায় দূরত্ব নির্ণয় করা হয়েছে। তিীন্দ্র বৈশ্যের বয়স ও দৈর্ঘ্যের বিবেচনা করলে এই সাঁতার বিশ্ব রেকর্ড হিসেবে গণ্য হবে। তিনি এই রেকর্ডকে গিনেস বুকে রেকর্ড করার জোর দাবী জানান।

মদন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ওয়ালিউল হাসান জানান, বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন। তাকে ডাক্তারের তত্বাবধানে নিবিড় পর্যবেক্ষনে রাখা হয়েছে

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।


ঘোষনাঃ